বৃহস্পতিবার , জুলাই ৯ ২০২০
Home / ফিচার / অন্তঃস্বত্তা হাতিটির সাথে এ কেমন বর্বরতা!

অন্তঃস্বত্তা হাতিটির সাথে এ কেমন বর্বরতা!

ফরেস্ট অফিসার মোহন যখন সংবাদ মাধ্যমকে তার বিবৃতি দিলেন তখন সেটা দেখে স্তম্ভিত হয়েগেছিলেন সমস্ত সাংবাদিক।

তিনি বলেছিলেন,

” ডাক্তার যখন হাতিটির ময়নাতদন্ত করেন তখন তিনি বলেন যে হাতিটি 6 মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। কাঁপা গলায় আরও জানান যে হাতিটির মধ্যে একটা 6th সেন্স কাজ করেছিল। সে জানতো তার মৃত্যু আসন্ন। শুঁড় সহ গোটা শরীর রক্তময়, যন্ত্রণায় জ্বলছিল সারা দেহ। এই অবস্থায় সে তার সন্তানের কথা ভেবে চলে যায় নদীর মাঝে জলের মধ্যে যাতে সেই রক্তাক্ত জায়গায় পোকা-মাকড় না বসে। যতক্ষণ প্রাণ ছিল সে চেষ্টা করেছিল যাতে তার সন্তানের কষ্ট একটু হলেও কম হয়।
আর শেষ অবধি সে ওই মাঝ নদীতেই প্রাণ ত্যাগ করে। ”

কেরলের Silent valley national park এর একটি 15 বছরের অন্তঃসত্ত্বা হাতি Malappuram এর একটি গ্রামের কাছে চলে আসে খাবারের সন্ধানে। সেখানে একটা আনারস খেতে দেওয়া হয় তাকে এবং সেটি খেয়ে নেয় সে। আনারসটির ভেতর বাজি ভর্তি ছিল। খাওয়া মাত্রই বাজি গুলো তার মুখে ফেটে যায়। রক্তাক্ত হয়ে যায় সারা মুখ।

তবুও নিজের সন্তানের কথা ভেবে সেই রক্তাক্ত শরীর নিয়েই ছুটে বেড়ায় সারা গ্রাম একটু খাবারের খোঁজে। শেষ অবধি সে খাবার পায়নি আঘাত ও করেনি কোনো গ্রামবাসী কে, ভাঙেনি কোনো ঘর। সোজা চলে এসে মাঝ নদীতে চুপচাপ দাঁড়িয়ে থাকে শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত। বহু চেষ্টাতেও তাকে সরানো যায়নি সেখান থেকে।

আরও পড়ুন

মাশরাফি-করোনা

আরও একবার লেখা হোক আপনার যুদ্ধ জয়ের গল্প

ফিচার: প্রথম প্রথম খুব চমকে উঠতাম। এখন গা সওয়া হয়ে গেছে। তখন ভাবতাম, কোথায় কোন …