বুধবার , অক্টোবর ২৮ ২০২০
Home / ফিচার / পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি করছে সিগারেট-বিড়ির পোড়া টুকরা

পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি করছে সিগারেট-বিড়ির পোড়া টুকরা

ভারতের এক সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, সিগারেটের শেষ অংশে থাকা সেলুলোজ অ্যাসিটেটের মাত্র ৩৭.৮%ই নষ্ট হয় দু’বছরে। তাঁদের সীমিত স্টাডিতে মানব শরীরে এবং পরিবেশে কতটা বিষ ছড়ায় তা পরিষ্কার হয়নি।

সিগারেট বিড়ির পোড়া টুকরো যাতে পরিবেশ দূষণের কারণ হয়ে না দাঁড়ায়, তার জন্য সেগুলিকে ঠিকভাবে নষ্ট করতে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদকে তিন মাসের মধ্যে গাইডলাইন তৈরির পরামর্শ দিল জাতীয় পরিবেশ আদালত। ‘ডক্টর্স ফর ইউ’ নামে চিকিৎসকদের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার করা মামলার প্রেক্ষিতে গত সপ্তাহের শেষে এই পরামর্শটি দিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ পরিবেশ আদালত।

মামলায় চিকিৎসকদের সংস্থার বক্তব্য ছিল, সিগারেট এবং বিড়ির ধোঁয়া বাতাসকে দূষিত করে। পোড়া টুকরো যত্রতত্র ফেলায় প্রতিনিয়ত দূষিত হচ্ছে মাটি এবং পানি। সিগারেট এবং বিড়ির অবশিষ্টাংশ সহজে জৈব উপায়ে নষ্ট করা যায় না। মাটিতে মিশে যেতে ছ’মাস থেকে এক বছরেরও বেশি সময় লাগে। আর সেই দীর্ঘ সময় ধরে ওই টুকরোয় থাকা প্রায় ৬০০ রকমের রাসায়নিক মেশে মাটিতে। বৃষ্টির জলে ধুয়ে তা গিয়ে পড়ে নদী এবং সমুদ্রে। গোটা পৃথিবীর পরিবেশ বিশেষজ্ঞদেরও মাথাব্যথার অন্যতম কারণ এটি।

আবেদনকারীদের অন্যতম আইনজীবী জয়দীপ সিং বলেন, ‘শুধু এ সবই নয়, নানা আন্তর্জাতিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, সিগারেট-বিড়ির পোড়া টুকরোয় প্রচুর ক্যান্সার সৃষ্টিকারী রাসায়নিক থাকে।’

আরও পড়ুন

সংগীত

গুরুবিহীন সংগীত অভিযাত্রার আগামী সংকট

সংগীত গুরুমুখী বিদ্যা তা আমরা কম-বেশি সকলেই জানি। শিক্ষা জীবনের শুরুতে যেমন অক্ষরজ্ঞান প্রয়োজন হয় …