মঙ্গলবার , সেপ্টেম্বর ২৮ ২০২১
শিরোনাম
Home / ফিচার / পিছিয়ে পরা কিশোরীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছেন ইফরাত ইমা

পিছিয়ে পরা কিশোরীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছেন ইফরাত ইমা

ফিচার: কোভিড পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্ব যেখানে ঘরবন্দী, সেখানে অসচেতন ও আর্থিক ভাবে পিছিয়ে থাকা কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে এবং সকলের মাঝে সচেতনতা তৈরি করতে নিরলস এবং নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছেন ইফরাত জাহান ইমা। এছাড়াও করোনা মহামারী থেকে বাঁচতে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে কিশোরীদের উদ্বুদ্ধ করছেন তিনি।

প্রথম শ্রেনীর কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার দেয়া তথ্য বলছে, প্রজনন ও যৌন স্বাস্থ্য সর্ম্পকে প্রয়োজনীয় তথ্যের অভাবে করেনাকালে বাল্য বিয়ে, অল্প বয়সে গর্ভধারণ, গর্ভপাতসহ বিভিন্ন প্রকার ঘটনা ঘটছে। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কিশোরীর প্রজনন স্বাস্থ্য। কারন এখনও দেশের ১২ ভাগ কিশোরী তাদের স্বাস্থ্য অধিকার সম্পর্কে কিছুই জানেনা। করোনার মহামারীতে গ্রাম ও শহর সব জায়গার মানুষ বলতে গেলে ঘরবন্দি অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তবে এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন জায়গায় চলছে গোপনে বাল্যবিয়ের আয়োজন। করোনাকালিন আর্থিক সংকটের কারনে নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারগুলো তাদের কিশোরী কন্যাদের বিয়ে দিয়ে দিচ্ছে।

এসব ক্ষতির হাত থেকে কিশোরীদের বাচাঁতে
স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন ইফরাত ইমা। করোকালে নিম্নবিত্ত পরিবারের কিশোরীদের স্যানিটারী ন্যাপকিন বিতরন, মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরন, কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা, বাল্যবিবাহের কফল সম্পর্কে কিশোরীদের সচেতন করাসহ নানা সচেতনামূলক কাজ করছেন ইফরাত ইমা।

 

ইমা বলেন, আমরা তথা বিশ্ব খুব খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। বয়স ভিত্তিক এবং প্রয়োজন ভিত্তিক এই খারাপ থাকাটা একটু আলাদা। স্বাভাবিক সময়েও যেভাবে লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা ছিল তেমন এই ক্রান্তিকালেও কোন অংশে কম নেই লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা। আমাদের সমাজের নিম্ন আয়ের, বস্তিতে বসবাসকারী কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত ও সচেতনতা তৈরি করতে এবং সহিংসতা প্রতিরোধ করতে কাজ করছি। করোনা মোকাবেলায় নানাবিধ স্বাস্থ্য সচেতনতা মূলক আলোচনা ও পরিসেবা দিচ্ছি।

উল্লেখ্য যে, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিডি ক্লিন বরগুনা শাখার সাপ্তাহিক মতবিনিময় সভায় কিশোরীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ও সহিংসতা প্রতিরোধ করতে স্যানিটারি ন্যাপকিন প্রদানের প্রস্তাব উপস্থাপন করে ইফরাত জাহান ইমা। পরে নিজেদের উদ্যোগে প্রথম পর্যায়ে ২০ জন কিশোরীর দায়িত্ব নেয় তারা।

বিডিক্লিন, খেলাঘরসহ কয়েকটি সংঘঠনের স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছেন ইফরাত জাহান ইমা। তিনি একাধারে স্বেচ্ছাসেবী, সংস্কৃতিকর্মী, নাট্যকর্মী, উপস্থাপক ও আবৃত্তিকার। ইমা ২০১৯ সালে তিনি জাতীয় মঞ্চকুঁড়ি পদক অর্জন করেন।

 

– খান নাঈম

আরও পড়ুন

থাকার জায়গা নেই,কিস্তি আদায় কেন্দ্রে দিন-রাত কাটছে সুরবালার

গোপাল হালদার, পটুয়াখালী: আসমানীরে দেখতে যদি তোমরা সবাই চাও, রহিমুদ্দির ছোট্ট বাড়ি রসুলপুরে যাও।’ পল্লীকবি …