বুধবার , নভেম্বর ২৫ ২০২০
Home / লাইফ স্টাইল / কিডনির পাথরসহ জন্ডিস দূর হবে যে পাতার রসে
পাথরকুচি পাতার উপকারিতা

কিডনির পাথরসহ জন্ডিস দূর হবে যে পাতার রসে

লাইফস্টাইল : চিকিৎসার ক্ষেত্রে যেসব ওষুধি গাছ প্রাচীনকাল থেকে ব্যবহার হয়ে আসছে তার মধ্য পাথরকুচি অন্যতম। এটি দেড় থেকে দুই ফুট উঁচু হয়। পাতা মাংসল ও মসৃণ, আকৃতি অনেকটা ডিমের মতো। চারপাশে আছে ছোট ছোট গোল খাঁজ। এই খাঁজ থেকে নতুন চারার জন্ম হয়।

পাথরকুচি পাতা মাটিতে ফেলে রাখলেই অনায়াসে চারা পাওয়া যায়। কাঁকর মাটিতে সহজেই জন্মে। তবে ভেজা, স্যাঁতসেঁতে জায়গায় দ্রুত বাড়ে।

গ্রামীণ চিকিৎসার মধ্যে এটি অন্যতম উপকারী। চিকিৎসা বিজ্ঞানীদেন মতে, পাথরকুচি পাতা কিডনি রোগসহ বিভিন্ন রোগের বিশেষ উপকারে আসে। তবে আর দেরি না করে চলুন জেনে নেই পাথরকুচি পাতার অবিশ্বাস্য ঔষধি গুণাগুণ সম্পর্কে।

১. পাথরকুচি পাতা কিডনি এবং গলগণ্ডের পাথর অপসারণ করতে সাহায্য করে। দিনে দুইবার ২ থেকে ৩টি পাতা চিবিয়ে অথবা রস করে খান।

২. অনেক সময় দেখা যায় পেট ফুলে যায় সঙ্গে প্রসাবও হয় না। এমনই সময় একটু চিনির সাথে এক বা দুই চা-চামচ পাথর কুচির পাতার রস গরম করে সিকি কাপ পানির সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়াতে হবে। মুহূর্তেই পেট ফাঁপা কমে যাবে।

৩. সর্দিজনিত কারণে শরীরের নানা স্থানে ফোঁড়া দেখা দেয়। যাকে মেহ বলা হয়। এক্ষেত্রে পাথরকুচির পাতার রস এক চামচ করে সকাল-বিকাল এক সপ্তাহ খেলে উপকার পাওয়া যায়।

৪. পিত্তজনিত ব্যথায় রক্তক্ষরণ হলে দু’বেলা এক চা-চামচ পাথর কুচির পাতার রস দুদিন খাওয়ালে সেরে যাবে।

৫. মৃগী রোগাক্রান্ত সময়ে পাথর কুচির পাতার রস ২-১০ ফোঁটা করে মুখে দিতে হবে। একটু পেটে গেলেই রোগের উপশম হবে।

 

 

 

 

 

এমআর/দুর্বার২৪

আরও পড়ুন

শীতে পা ফাটা রোধের সহজ উপায়

শীতে পা ফাটা রোধের সহজ উপায়

লাইফস্টাইল : শীত আসি আসি করছে। হেমন্তের সোনালি আভায় ভর করতে শুরু করেছে শীতের ধূসরতা। …