মঙ্গলবার , আগস্ট ১১ ২০২০
Home / ফিচার / করোনা ও অবরোধে থমকে আছে উপকুলীয় জেলে জীবন
করোনা

করোনা ও অবরোধে থমকে আছে উপকুলীয় জেলে জীবন

ফিচার: সাধারনভাবে যারা মাছের উপর নির্ভর করে জীবিকা নির্বাহ করে, তারাই জেলে হিসেবে স্বীকৃত। আবার নদীর উপর বা পানির উপর নির্ভরশীলদেরকেও জেলে বলা হয়। মাছ ধরাই জেলেদের প্রধান কাজ। অতীতে উৎপাদিত মাছের বেশিরভাগই প্রাকৃতিকভাবে খাল-বিল, নদী-নালায় বিপুল পরিমানে পাওয়া যেত। মাছের চাহিদা বৃদ্ধির সাথে সাথে জেলেদের কাজের পরিধিও বেড়ে গেছে কয়েকগুন।

বাংলাদেশের খাদ্য, পুষ্টি, কর্মসংস্থান এবং রপ্তানি আয়ের ক্ষেত্রে মৎস্য সম্পদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রাচীনকাল থেকেই এদেশের কিছু লোক জীবন ধারনের জন্য মৎস্য আহরনের উপর নির্ভর করে আসছে। উপকুলীয় এলাকার জেলেরা সাধারনত নদী তীরবর্তী অঞ্চলে ছোট ছোট পাড়া বা গ্রামে বসবাস করে থাকে। বর্তমান সময়ে একদিকে করোনা মহামারি, অন্যদিকে সরকারী নিষেধাজ্ঞা থাকার কারনে উপকুলীয় এলাকার অধিকাংশ জেলেরা দু’বেলা দু’মুঠো খেতেও পায় না। এ যেন মরার উপর খরার ঘা। এ নিয়ে আ. রহিম নামের এক জেলে বলছিলেন “কোন মতে খেয়ে না খেয়ে দিন চলছে।

ননন

করোনার কারনে অন্য কোন কাজও করতে পারছি না, যা দিয়ে কিছু চাল, ডাল কিনে বাড়িতে নিয়ে যাব। এ অবস্থায় আমরা চলব কিভাবে? তোফাজ্জেল নামের এক জেলে বলছিলেন- “করোনা ও নিষেধাজ্ঞা দু’টি একসঙ্গে থাকার কারনে খুব খারাপ সময় যাচ্ছে। সরকারীভাবে যে চাল পেয়েছি, তাও প্রায় শেষের পথে। জানিনা এরপর কি হবে?” ইব্রাহিম নামের একজন স্থানীয় জানান, “ সবাই যদি মানবিক দিক থেকে এসব জেলের সাহায্যের হাত বাড়াই, তাহলে এসব জেলেরা না খেয়ে থাকবে না। গত ২০ মে থেকে শুরু হয়েছে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা। এই সময়ে অনেক জেলে তাদের জাল, ট্রলার মেরামত করছে।

যাতে অবরোধ শেষ হলেই তারা সমুদ্রে মৎস্য শিকারের জন্য যেতে পারেন। ঝড়-জলোচ্ছাসের কারনে অনেক জেলের আর জীবন নিয়ে ফেরা হয়না তাদের পরিবারের কাছে। উপকুলীয় অঞ্চলে দারিদ্রতার হার বেশি। সেখানে বছরের একটি দীর্ঘ সময় মানুষের কাজ থাকে না। যার ফলে, দারিদ্রতাও তাদের পিছু ছাড়ে না। এ অবস্থা থেকে উপকুলীয় এলাকার জেলেদের বের করে আনতে প্রয়োজন টেকসই কর্মসূচী।

যে জেলেরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঝড়-তুফান ও বৈরী আবহাওয়ার উপেক্ষা করে সমুদ্রে মাছ ধরে দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষের আমিষ জোগান। সেই জেলেদের জীবনই চলে ধুঁকে ধুঁকে।

লিখেছেন- সাইদুর রহমান

 

দদদ

আরও পড়ুন

মাটির নিচে এক অদ্ভুত গ্রাম

ফিচার: নিত্যনতুন আধুনিক প্রযুক্তি ব্যাবহার, অত্যাধুনিক স্থাপনার কারণে চীনের অনেক শহর গোটা পৃথিবীতে অনুকরণীয় হয়ে …